পেন টুল ব্যবহার করছেন? তাহলে পোস্টটি পরে নিন - Graphic Scool

Blog

পেন টুল ব্যবহার করছেন? তাহলে পোস্টটি পরে নিন

অন্যান্য যে কোন ভেক্টর গ্রাফিক্সের মত ইলাস্ট্রেটরের সবচেয়ে শক্তিশালি টুল হচ্ছে পেন টুল। পেন টুল আগে ব্যবহার না করলে কিছু বিষয় জেনে নেয়া প্রয়োজন।

ভেক্টর গ্রাফিক্সে এংকর পয়েন্ট নামে একটি বিষয় ব্যবহার করা হয়। একটি সোজা লাইন যদি কল্পনা করেন তাহলে লাইনের দুটি প্রান্তে রয়েছে দুটি বিন্দু বা এংকর পয়েন্ট। এই দুটি পয়েন্টকে যোগ করে তৈরী হয় পাথ। ইলাস্ট্রেটর পেন টুল আসলে পাথ তৈরী করে না, শুধুমাত্র এংকর পয়েন্ট তৈরী করে। সাধারন রেকট্যাংগল টুল ব্যবহার করে রেকট্যাংগল তৈরী করলে সেখানে এংকর পয়েন্ট এবং পাথ দুইই তৈরী হয়।

এক বা একাধিক এংকর পয়েন্টকে সিলেক্ট করে এক যায়গা থেকে আরেক যায়গায় সরানো যায়। এর ফলে পাথ পরিবর্তিত হয়।

ইলাস্ট্রেটরে দুই ধরণের এংকর পয়েন্ট হতে পারে। একটি রেকট্যাংগলের চারটি এংকর পয়েন্ট হচ্ছে কর্নার এংকর পয়েন্ট। দুটি সরলরেখাকে যোগ করার জন্য এধরনের পয়েন্ট ব্যবহার করা হয়। আরেকধরনের এংকর পয়েন্টের নাম কার্ভ বা স্মুথ এংকর পয়েন্ট। এগুলি একই রেখার ওপর অবস্থিত। একে একটি রেখার দুটি প্রান্তের পয়েন্টের মাঝামাঝি আরেকটি (বা একাধিক) পয়েন্ট কল্পনা করতে পারেন। এই পয়েন্ট এর সাথে কন্ট্রোল হ্যান্ডেল থাকে। একে ব্যবহার করে রেখাটির বাকানোর পরিমান নিয়ন্ত্রন করা যায়। অনেক সময় রেখা বা সেপকে বেজিয়ে (Bezier) কার্ভ বলা হয় এবং কন্ট্রোল হ্যান্ডেলকে বেজিয়ে হ্যান্ডেল বলা হয়।

কনভার্ট এংকর পয়েন্ট নামে আরেকটি বিশেষ ধরনের এংকর পয়েন্টের ব্যবহার রয়েছে। এটা মুলত কর্নার এংকর পয়েন্ট কারন দুটি রেখার সংযোগস্থলে থাকে, সেইসাথে স্মুথ এংকর পয়েন্টের মত কন্ট্রোল হ্যান্ডেল থাকে।

ইলাস্ট্রেটরে যে কোন সেপের ওপর নতুন এংকর পয়েন্ট তৈরী, মুছে দেয়া, এক ধরনের এংকর পয়েন্টকে অন্য ধরনের এংকর পয়েন্ট পরিনত করা ইত্যাদি করা যায়। ফলে যেকোন ধরনের জটিল ড্রইং করা সম্ভব হয়।

ইলাস্ট্রেটরে পেনটুলের যায়গায় মোট ৪টি টুল রয়েছে। এদের কাজ হলো সরাসরি পেন টুল, নতুন এংকর পয়েন্ট তৈরী, এংকর পয়েন্ট মুছে দেয়া এবং এক ধরনের পয়েন্টকে অন্য ধরনের পয়েন্টে পরিনত করা।

পেন টুল ব্যবহার করে কর্নার এংকর পয়েন্ট তৈরীঃ

  • নতুন একটি ডকুমেন্ট তৈরী করুন।
  • পেনটুল সিলেক্ট করুন।
  • কোথাও ক্লিক করে একটি এংকর পয়েন্ট তৈরী করুন।
  • আরেক যায়গায় ক্লিক করে আরেকটি এংকর পয়েন্ট তৈরী করুন। দুটি এংকর পয়েন্টে একটি সংযোগ সেপ পাওয়া যাবে।
  • ক্লিক করে তৃতীয় আরেকটি এংকর পয়েন্ট তৈরী করুন। আগের রেখা বর্ধিত হয়ে এই এংকর পয়েন্টের সাথে যুক্ত হবে। ত্রিভুজের ৩ কোনের মত তিনটি বিন্দু তৈরী করে প্রথম এংকর পয়েন্টে ক্লিক করুন (সেখানে পয়েন্টার আনলে আইকন পরিবর্তিত হবে)। একটি ত্রিভুজ (ক্লোজড সেপ তৈরী হবে।

স্মুথ এংকর পয়েন্ট তৈরীঃ

  • ক্লিক করে নতুন একটি এংকর পয়েন্ট তৈরী করুন। ক্লিক করে মাউস বাটন ছেড়ে না দিয়ে ড্রাগ করুন। কন্ট্রোল হ্যান্ডেল তৈরী হবে।
  • কিছুটা দুরে ক্লিক করে আরেকবার ক্লিক করে আরেকটি পয়েন্ট তৈরী করুন। এবারে মাউস বাটন ছেড়ে না দিয়ে চেপে ধরে সরানোর চেষ্টা করুন। কন্ট্রোল হ্যান্ডেল পাওয়া যাবে এবং সরলরেখার বদলে বাকা রেখা পাওয়া যাবে।

এংকর পয়েন্ট সিলেক্ট করাঃ

কোন সেপের নির্দিষ্ট এংকর পয়েন্ট সিলেক্ট করে পরিবর্তনের জন্য ডিরেক্ট সিলেকশন টুল ব্যবহার করুন।

পেন টুল ব্যবহার করে বৃত্ত তৈরীঃ

বৃত্ত তৈরীর জন্য অবশ্যই পেন টুল প্রয়োজন হয় না, সরাসরি বৃত্ত তৈরীর ব্যবস্থা রয়েছে। তারপরও, পেন টুলের ব্যবহার শেখার জন্য একটি বৃত্ত তৈরী করে দেখা যাক।

ছবিতে ৪টি বিন্দু রয়েছে, ১, ২, ৩ এবং ৪। একটি বৃত্ত আকা হবে যা এই ৪টি বিন্দুরকে এংকর পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করবে।

কাজের সুবিধের জন্য ১১, ২২, ৩৩ এবং ৪৪ নামে আরো ৪টি পয়েন্ট দেখানো হয়েছে।

  • পেন টুল সিলেক্ট করে ১ পয়েন্ট ক্লিক করুন। মাউস ছেড়ে না দিয়ে তাকে ১১ পয়েন্ট পর্যন্ত ড্রাগ করুন। কর্নার পয়েন্ট এর বদলে কন্ট্রোল হ্যান্ডেল সহ স্মুথ পয়েন্ট তৈরী হবে। ড্রাগ করার সময় সোজা রাখার জন্য সিফট কি চেপে ধরুন।
  • ২ পয়েন্টে ক্লিক করুন এবং ২২ পয়েন্ট পর্যন্ত ড্রাগ করুন। বৃত্তের একটি অংশ পাওয়া যাবে।
  • ৩ পয়েন্টে ক্লিক করুন এবং ৩৩ পয়েন্ট পর্যন্ত ড্রাগ করুন।
  • ৪ পয়েন্টে ক্লিক ৪৪ পয়েন্ট পর্যন্ত ড্রাগ করুন।

হার্ট সেপ তৈরীঃ

চারটি এংকর পয়েন্ট দিয়ে তৈরী এই বৃত্তকেই অনায়াসে হার্ট সেপে পরিনত করতে পারেন।

  • টুলবক্সে পেনটুল থেকে কনভার্ট টুল সিলেক্ট করুন।
  • ১ নম্বর পয়েন্টে ক্লিক করে তাকে কর্নার এংকর পয়েন্টে পরিনত করুন।
  • পয়েন্টটিকে ড্রাগ করে বৃত্তের ভেতরের দিকে আনুন।
  • ৩ নম্বর পয়েন্টকে একইভাবে পরিবর্তিত করে নিচের দিকে আনুন। মোটামুটি হার্ট সেপ পাওয়া যাবে।
  • কন্ট্রোল হ্যান্ডেল ব্যবহার করে সেপকে পছন্দমত করে নেয়া যাবে।

যে কোন টুল ব্যবহার করে আকার পর তাকে পেনটুল ব্যবহার করে ইচ্ছেমত সেপে আনতে পারেন। মুলত এভাবেই ইলাস্ট্রেটরে ড্রইং করা হয়। এংকর পয়েন্ট সরালে তারসাথে মিল রেখে পাথ পরিবর্তিত হবে। এছাড়া কনভার্ট এংকর পয়েন্ট টুল ব্যবহার করে স্মুথ, কর্নার ইত্যাদির মধ্যে যা প্রয়োজন সেটি করে নিন। কনভার্ট এংকর পয়েন্ট টুল ব্যবহার করে যে কোন একটি হ্যান্ডল্যার ড্রাগ করে তাকে এককভাবে সরাতে পারেন।
এংকর পয়েন্ট সেপ পরিবর্তন করার জন্য অত্যন্ত ভাল হলেও কখনো কখনো অতিরিক্ত এংকর পয়েন্ট থাকার কারনে কাজ জটিল হয়ে দাড়াতে পারে। বিশেষ করে অন্য কোথাও থেকে ইমপোর্ট করা ইর্টওয়ার্কে প্রয়োজনের থেকে অনেক বেশি এংকর পয়েন্ট থাকতে পারে। ইলাস্ট্রেটরে খুব সহজে প্রয়োজনীয় এংকর পয়েন্ট রেখে অপ্রয়োজনীয়গুলি বাদ দেয়া যায়।
সেপটি সিলেক্ট করুন।

মেনু থেকে Object – Path – Simplify সিলেক্ট করুন। Simplify ডায়ালগবক্স পাওয়া যাবে।

এখানে মান পরিবর্তন করে কতটুকু সহজ করতে চান ঠিক করে দিন।

ক্লিন-আপঃ
ইলাস্ট্রেটরে কাজ করার সময় পেনটুল ব্যবহার করে কোথাও অপ্রয়োজনে ক্লিক করা থেকে শুরু করে নানাবিধ কারনে এমন পয়েন্ট, পাথ ইত্যাদি তৈরী হতে পারে যেগুলি চুড়ান্ত ড্রইং এ প্রয়োজন নেই। একচি সহজ কমান্ড ব্যবহার করে এগুলি বাদ দিতে পারেন।

মেনু থেকে কমান্ড দিন Object – Path – Clean-Up

কি কি বাদ দিতে চান সেগুলিতে টিক চিহ্ন রেখে OK বাটনে ক্লিক করুন।

পেনটুল অত্যন্ত শক্তিশালি এমন একটি টুল যা ব্যবহার করা যায় ইলাস্ট্রেটর ছাড়াও ফটোশপ, ফ্লাশ, আফটার ইফেক্টস সহ অধিকাংশ সফটঅয়্যারে। অন্যদিকে এর ব্যবহারের জন্য বেশ সময় নিয়ে অভ্যাস করা প্রয়োজন। প্রাকটিসের সময় একটি সাধারন নিয়ম মনে রাখুন, ক্লিক এবং ড্রাগ। যেখানে ক্লিক করবেন সেখানে পয়েন্ট তৈরী হবে এবং যতটুকু ড্রাগ করবেন তারসাথে মিল রেখে বাকা হবে।

আশা করি পেন টুলের আদ্যপান্ত আপনি খুব ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। এরকম আরও হেল্পফুল ব্লগ পড়তে গ্রাফিক স্কুলের ওয়েব সাইট ভিজিট করুন। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। আমাদের সাথেই থাকবেন। আসসালামু আলাইকুম।

 

লিখেছেন

মোঃ রিয়াদ আহম্মেদ

Facebook Comment